মোঃ মিঠুমিয়া, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মারিয়া শাহেব বাড়ি গ্রামের মৃত্যু আয়জুদ্দিনের পুত্র মোঃ শাহরুল ইসলাম
একজন আনসার ভিডিপি সদস্য এবং শান্তি প্রিয় মানুষ।
তিনি এলাকার হ্যাকার ও জ্বীনের বাদসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় মারিয়া সাহেব বাড়ি গ্রামের মঞ্জুর পুত্র পাপুল মিয়া এবং সাপগাছি হাতিয়া দহ গ্রামের রাজা মিয়ার পুত্র রেজাউল করিম সহ আর ১০/১২ জনের হ্যাকার জ্বীনের বাদশা ও অন্যায়কারী ভূমিদস্যু গত ১৯ শে জানুয়ারি ২০২৪ বিকাল সাড়ে চার ঘটিকার সময় শাহারুল ও তার পরিবারের সদস্যদেরকে অতর্কিত হামলা করে তার রেকর্ডীয় এবং চাষাবাদ কৃত ৪২ শতক জমি জোর করে বেদখল করার চেষ্টা করে মারপিট করে আহত করে ও ক্ষতি সাধন করে।
এতে সাহারুল মিয়া, রাবেয়া বেগম, আলেয়া বেগম , রুপালি বেগম, রবি বেগম সহ দরবস্থ ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য আমিরুল ইসলাম সরদার মারাত্মকভাবে আহত হয়ে।
ভিকটিমগণ গোবিন্দগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে এবং রবি বেগম বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা করেন।এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাহারুল ইসলামের স্ত্রী মোছাঃ তারাভানু বাদী হয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি নিয়মিত মামলা করেন।
যাহার নম্বর ২১, জিআর ২১/ ২০২৪ইং ধারাঃ
১৪৩/ ৩২৩ /৩২৬/ ৩০৭/৩৭৯/ ৫০৬/ ১১৪/৩৪ দঃ বিঃ ।
উক্ত মামলায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট থেকে জানা গেছে অন্যান্য আসামিগণ আদালত থেকে জামিন হলেও আসামি পাপুল মিয়া ও রেজাউল করিম জামিন না নিয়ে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল না হয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে বাদীনি ও তার পরিবার অভিযোগ করেন।
উক্ত মামলার বাদীনির স্বামী ভিকটিম সাহারুল ইসলাম জানান তার ৪২ শতক জমি অন্যায় ভাবে বেদখলের চেষ্টার প্রতিবাদে গাইবান্ধা অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২২৫/ ২০২৪ নং মামলা ধারা ১৪৪/ ১৪৫ দায়ের করেন।
বিজ্ঞ আদালত শুনানিঅন্তে সন্তুষ্ট হয়ে উক্ত জমিতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য ওসি গোবিন্দগঞ্জ থালাকে এবং সহকারী কমিশনার ভূমি গোবিন্দগঞ্জ কে কাগজপত্র সহ দখল সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশনা দেন।
গোবিন্দগঞ্জ থানা থেকে এএসআই আসাদুজ্জামান ২০ এপ্রিল বিকালে সরজমিনে বিবাদীগণ ও বাদি কে নোটিশ জারি করেন।ইহাতে ক্ষিপ্ত হয়ে বিবাদীগণ পলাতক আসামি পাপুলের নেতৃত্বে বাদীনি তারাভানু ও সাহারুল
ইসলামকে ধাওয়া করে বাড়িঘর ছাড়া করে বলে সরজমিনে অভিযোগ পাওয়া গেছে।মামলা করে বিপাকে পড়েছেন তারাভানু ও তার পরিবার । আসামীদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে সাহারুল ইসলাম পার্শ্ববর্তী গ্রাম রামনাথপুরে তার ভাইয়ার বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে।ভুক্তভোগী পরিবার আনসার ভিডিপি সদস্য ও গরিব অসহায় শান্তিপ্রিয় মানুষ হওয়ায়, হ্যাকার ও জ্বীনের বাদশা প্রভাবিত মারিয়া সাহেব বাড়ি এলাকায় তাদের স্থান হচ্ছে না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।।
আসামিগণ বাদীনির স্বামী সাহারুলের ভোগ দখলীয় রেকর্ডীয় জমি বে দখলের চেষ্টা করলে সাহারুল ইসলাম গোবিন্দগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে গোবিন্দগঞ্জ থানার জিডি নং ১০৩৬ তারিখঃ ২১/১২/২০২৩ ইং দাখিল করেন।পুলিশ ঘটনা তদন্ত করে সত্য পাওয়ায় আসামীদের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশন নং ৩২২/২০২৩ ইং কোর্টে দাখিল করেছেন।
যাহা বিচারাধীন রয়েছে।
অপরদিকে আসামীদের হুমকির মুখে সাহারুল ও তারাভানু বিচারের আশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন এবং নিজ বসতবাড়িতে ফিরতে পারছেন না বলে এই প্রতিনিধিকে জানিয়েছেন।
এলাকার শান্তি প্রিয় মানুষের দাবি জ্বীনের বাদসা, হ্যাকার চক্রের সদস্য সন্ত্রাসী পলাতক আসামি পাপুল ও রেজাউল করিম কে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জোরালো হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।।