মোঃ নুর ইসলাম মৃধা,স্টাফ রিপোর্টারঃ

পটুয়াখালী-১ আসনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট গোলাম সরোয়ার সংবাদ সম্মেলনে তার মমোনয়ন প্রত্যাশীর কথা আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষনা করেছেন।
বুধবার (৪অক্টোবর) রাতে পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এঁর ঘোষিত উন্নত, সমৃদ্ধ ও আধুনিক স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় নিয়ে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পটুয়াখালী-১ (সদর- মির্জাগঞ্জ-দুমকি) আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে মমোনয়ন প্রত্যাশীত ঘোষনা করেন পটুয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট গোলাম সরোয়র। তিনি সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এঁর নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম তুলে ধরেন। তিনি বলেন- প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এঁর নেতৃত্বাধীন আওয়ামীলীগ সরকার, অবহেলিত পটুয়াখালীর উন্নয়নে দেশের সর্ববৃহত ১৩২০ মেগাওয়ার বিদ্যুৎ প্লান্টসহ একাধিক মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়ন করেছেন,
স্বপ্নের পদ্মা সেতু নির্মাণ, মেট্রোরেল নির্মাণ, বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, রামপাল, মাতারবাড়ী সহ একাধিক স্থানে অনেকগুলো প্লান্ট স্থাপন, প্রতি জেলা ও উপজেলায় মডেল মসজিদ, পায়রা ও মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্রবন্দর, কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মাণ করা হয়েছে। যমুনা নদীতে বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নির্মাণাধীন। জেলেদের খাদ্য সহায়তা, তিনটি বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীতকরণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সাগর জয় করেছেন, ছিটমহল সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধান করেছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট স্থাপন করেছেন, মিয়ানমার থেকে আসা ১১ লক্ষ মানুষকে আশ্রয় দিয়ে বিশ্ব মানবতার নেত্রী হিসেবে বিশ্বে খ্যাতি অর্জন করেছেন আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচীর মাধ্যমে স্বামী পরিত্যাক্তা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীকপ পুর্নবাসন, ভূমিহীন- গৃহহীন কোটি মানুষকে জমিসহ গৃহ নির্মান করে দিয়েছেন, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, দুগ্ধ ভাতা, ইউনিয়নে কমিউনিটি সেন্টারসহ নানামুখী প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে দরিদ্রতা হ্রাস পেয়েছে। বাংলাদেশ সরকার নানাভাবে নারী উদ্যোক্তাদের অনুপ্রেরণা দিয়ে এসেছে। বাংলাদেশ শিল্প ও বাণিজ্য খাতে ব্যাপক প্রসার ঘটিয়েছে। অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১ লাখ ৩৪ হাজার ৬৪১ কোটি টাকার ২৯টি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন।
বিনামূল্যে কোভিড-১৯ অর্থাৎ করোনা ভ্যাকসিন প্রদান এখন পর্যন্ত চলমান রয়েছে। বাংলাদেশকে উন্নত বিশ্বের মতো এগিয়ে নিতে নেয়া হয়েছে ১০০ বছরের ডেল্টা প্ল্যান।