অতুল সরকার, ক্রাইম রিপোর্টারঃ

আসন্ন পাংশা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বাংলাদেশ সরকারের রেলপথ মন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম এমপি’র পুত্র বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী আশিক মাহমুদ মিতুলকে নিয়ে মিথ্যাচার করা হচ্ছে বলে প্রকাশ্যে মিটিং ও বিভিন্ন মাধ্যমে দাবী করেছেন আশিক মাহমুদ মিতুল। পাংশা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ২০২৪ প্রতিক বরাদ্ধের পর থেকেই নির্বাচনী মাঠে পাংশা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খোন্দকার সাইফুল ইসলাম বুড়ো’র পক্ষে মোটর সাইকেল মার্কায় ভোট চেয়ে গনসংযোগ করে চলছেন তিনি আশিক মাহমুদ মিতুল।প্রতি দিনই উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ভোটাদের সাথে মত বিনিময় সভা উঠান বৈঠকসহ বিভিন্ন নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন তিনি। পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া প্রপ্রার দাখিল মাদ্রাসা মাঠে ও হাবাসপুর ইউনিয়নের চরঝিকড়ী নতুন বাজার এলাকায় বক্তব্য কালে বলেন- আমি সত্যি কথা বলায় প্রতিপক্ষদের গায়ে আগুন জ্বলতে শুরু করেছে, আমার বিভিন্ন স্থানে দেওয়া বক্তব্য কাটিং করে তা নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে, নির্বাচন কমিশন আমাকে একটি লাভ লেটার দিয়েছে (সর্তকবার্ত)।আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়ে আমাকে পাংশা থেকে সরানো জাবে না, আমি এ মাটির সন্তান আমি আওয়ামীলীগের একজন নগন্য কর্মী হিসাবে এখানে এসেছি আমি মন্ত্রীর ছেলে হিসাবে আপনাদের কাছে আসেনি, আমি আওয়ামীলীগ কর্মী আমার পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী সভায় বক্তব্য দিচ্ছি। আমার সকল বক্তব্য ইন্টারনেটে ফেসবুকে রয়েছে সম্পূন্য দেখবেন আমি কোন টা মিথ্যা বলেছি।দূর্নিতির দায়ে ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বহিস্কার হয়েছিল উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ হাসান ওদুদ এটা বলা দোষের নাকি, তার ভাই সিদ্দিক মন্ডল যশাই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান থাকতে চাল ও পাটের বীজ চুরি করে ধরা পড়ে জেলে গিয়েছিল এটা বলা কি আমার অপরাধ, যদি সত্যি বলা অপরাধ হয়ে থাকে তা হলে কিছু বলার নেই। চোরের মার বড় গলা এটা তো ছোট থেকেই শুনছি। আমি ও আমাদের পরিবার কখোন ক্ষমতার বড়াই করি না, ক্ষমতার সাথে সাথে দায়িত্ববোধ বেড়ে যায়। এ নির্বাচনের প্রচারনায় আমি না আসলেও পারতাম আমি এসেছি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করতে, অল্প কিছুদিন আগে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আপনারা আপনাদের পছন্দের মানুষ রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগে সভাপতি আমার পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম এমপিকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করেছেন, আপনাদের নেতাকে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনাদের নেতা জিল্লুল হাকিম সাহেবকে রেলপথ মন্ত্রী বানিয়ছেন এই জন্য আপনাদের কাছে এসেছি কৃতজ্ঞতা জানাতে।আর কিছু সত্যি কথা আপনাদের জানাতে, আপনারা জানেন তারপরও মনে করিয়ে দিতেই আসছি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা কথা বলে লাভ নেই, আমার বিরুদ্ধে ওনারা যে সড়যন্ত্র করেছিলো তার থেকে মহান আল্লাহ আমাকে রক্ষা করেছেন আমি সৃষ্টিকর্তার নিকট শুকরিয়া জানায়। আল্লাহ পাক মহান বিচারক তিনিই সকল কিছুর মালিক আমি তা বিশ্বাস করি। পাংশা উপজেলা বাসি সিদ্ধান্ত নিবেন আগামী দিনে কে হবেন উপজেলা চেয়ারম্যান এটা ভোটারদের ব্যপার।আমি পাংশার মানুষের কাছে মন্ডল পরিবারের লোকজন দ্বারা নির্যাতিত হয়েছেন যারা সে কথা গুলো বলছি, একটাও মিথ্যা কথা বলিনি, আর আমি কাউকে হুমকি ধুমকি দেইনি আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে কোন লাভ নেই, আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ ছাপিয়ে বুড়ো চেয়ারম্যানকে বিজয় থেকে দূরে রাখা যাবে না। আগামী ৯ তারিখে সকলের সাথে বিজয় মিছিলে অংশ নিয়েই পাংশা থেকে যাবো।